ঘুরে দাঁড়াচ্ছে শ্রীলঙ্কা! নিয়মিত হয়েছে দেশটির ক্রিকেট

 




মারাত্মক আর্থিক সংকটে পড়েছিল দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। প্রায় ৫১০০ কোটি ডলারের আন্তর্জাতিক ঋণ মাথায় নিয়ে গত এপ্রিলে নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা করে দেশটি। শ্রীলঙ্কার রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক দুর্দশার প্রভাব পড়েছিল ক্রিকেটাঙ্গনেও। সেকারণে দেশটি এশিয়া কাপের আয়োজক হবে কি না, তা নিয়ে জেগেছিল শঙ্কা।


তবে রাজনৈতিক পালাবদলের পর ঘুরে দাঁড়াচ্ছে শ্রীলঙ্কা। একইসঙ্গে নিয়মিত হয়েছে দেশটির ক্রিকেটও। ফলে এশিয়া কাপের ভেন্যু বদলের সম্ভাবনা উবে গেছে।


বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মূলত এশিয়া কাপের ঘোষণা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) থেকেই আসবে। এখন পর্যন্ত যা জানি- শ্রীলঙ্কাই এশিয়া কাপ আয়োজন করছে। ইতোমধ্যে অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দল শ্রীলঙ্কা সফর করেছে। তাদের  হোস্টিংয়ের চ্যালেঞ্জ হয়তো কাটিয়ে উঠেছে।



আমরা আশা করছি নির্ধারিত সময়েই এশিয়া কাপ হবে।’

সম্প্রতি পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা সফর করছে অস্ট্রেলিয়া। লঙ্কান প্রিমিয়ার লীগও দোরগড়ায়। সবমিলিয়ে ক্রিকেট আয়োজনের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)।


শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে উদ্বিগ্ন নন সুজন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে ভারত-পাকিস্তানের মতো হাই প্রোফাইল দলগুলোও যাবে (এশিয়া কাপ খেলতে)। তাই আমাদের চেয়ে এসিসিই এটা নিয়ে বেশি ভাবছে। আশা করি বিষয়টা তারা সেভাবেই সামাল দেবে।’


টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ২৭শে আগস্ট থেকে ১১ই সেপ্টেম্বর এশিয়া কাপ হওয়ার কথা রয়েছে। টি টোয়েন্টি ফরম্যাটের এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, আফিগানিস্তান অংশ নেবে। সবশেষ ২০১৮ সালে ওয়ানডে ফরম্যাটে হয়েছে এশিয়া কাপ। সেবার বাংলাদেশকে হারিয়ে শিরোপা জেতে ভারত। করোনার কারণে ২০২০ সালে এশিয়া কাপ আয়োজিত হয়নি।

নবীনতর পূর্বতন

যোগাযোগ ফর্ম